দশভুজা   


প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২, ৬:১৩ অপরাহ্ণ / ১৩১
দশভুজা   
সৈয়দ ইসমাইল হোসেন জনি 
ওমা দেবী  দশভুজা
ভক্ত করে  তবো পূজা ,
মহাদেবী  মহা মায়া
বিশ্বমাঝে  তুমি ছায়া ।
নাশ করো  সাধ্যমত
অসুরের শক্তি যত ,
তাকে ধরে  বধ করে
শান্তি আনো  ঘরে ঘরে।
পাপাচার  অনাচার
দূর করো  অন্ধকার ,
হানাহানি  মারামারি
চলে যাক  বিশ্ব ছাড়ি ।
মানিওনা পরাজয়
অপশক্তি  করো ক্ষয় ,
তুমি মাগো  মহামায়া
ভক্তদের  দিও ছায়া ।
মনেমনে  ভক্তগনে
চায় স্থান   ঐ চরণে ,
আসো তুমি মর্তলোকে
দেখি সবে চর্ম চোখে ।
মহাদেব  তবো পতি
স্বর্গরাজ্যে  অধিপতি ,
স্বর্গে বসে  পান খায়
সারাক্ষণ  গান গায় ।
যিনি যায়  স্বর্গধামে
ভক্তি দেয়  তার নামে ,
দেবতার দেবতা সে
সেবা দেয় ঐ চরণে।
লক্ষ্মী আর সরস্বতী
রূপে গুণে  বুদ্ধিমতী  ,
বিদ্যাদেবী  সরস্বতী
লক্ষ্মী হলো  ভাগ্যবতী  ।
কার্তিকের  মহা শক্তি
তাকে সবে  করে ভক্তি ,
গণেশের  হস্তী মাথা
তিনি হলো  সিদ্ধিদাতা ।
ছেলেমেয়ে  নিয়ে বুকে
আছো তুমি  মহাসুখে ,
কষ্টে মরে  ভক্তগণে
তা-কি তুমি ভাবো মনে?
পরে সবে গ্যড়াকলে
ভক্ত কাঁদে  দলেদলে ,
ধর্মকর্ম  ভুলে গিয়ে
আছে সবে  মন্দ নিয়ে ।
স্বর্গ ছেড়ে  চলে আসো
সবাইকে  ভালোবাসো ,
দেখা দাও  চুপেচুপে
কেনো থাকো  মূর্তিরূপে ?
ভক্ত চায়  ভালোবাসা
পূর্ণ করো  স্বপ্ন আশা,
মর্তলোকে আসো তুমি
ধন্য করো পূন্যো ভূমি।
পূজা পেতে  আসো ছুটে
ফিরে যাও  রথে উঠে ,
ক্ষণিকের  পূজা নিয়ে
কেনো যাও  ফাকি দিয়ে ?
ভক্ত  চায়  কাছে পেতে
কেনো থাকো  কৈলাসেতে ?
আমাদের  পেয়ে বোকা
আর কতো  দেবে ধোকা ?
ছলাকলা  ভুলে যাও
সত্যিভাবে  পূজা নাও,
যদি তুমি ভালো চাও
কেনো তবে চলে যাও ?
ভুলে গিয়ে  মূল ধর্ম
করে সবে  অপকর্ম ,
কারো নাই  শুভবুদ্ধি
করো তুমি  আত্মশুদ্ধি  ।
শয়তানি  চালে পড়ে
ধান্ধাবাজী  কর্ম করে ,
সাধুবেশে  কাছে এসে
ক্ষতি করে অবশেষে ।
করো এর  সমাধান
ভক্ত চায়  পরিত্রাণ ,
শক্ত হাতে  অস্ত্র ধরো
অধর্মের  নাশ করো ।
দয়া করো  মহামায়া
তুমি দেবী  স্বর্গ ছায়া ,
সদাশয় কাছে চাই
তুমি ছাড়া গতি নাই ।
যদি ভাগ্যে  দয়া মেলে
সব বাধা  পিছে ফেলে ,
দিয়ে দেবো  দেহ প্রাণ
স্বর্গে পাবো  পুষ্প ঘ্রাণ ।
জনি বলে খাঁটি কথা
হ্রাস পাচ্ছে মানবতা ,
কথা কাজে নাই মিল
নষ্টামীতে  ভরা দিল ।
তুমি মাগো  ভগবতী
সৎ কর্মে  রাখো মতি ,
তবো পদে  দিও ঠাই
আর কোনো  দাবী নাই ।