অচীন দেশে পাড়ি 


প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২৩, ৭:৫৫ অপরাহ্ণ / ৭৫
অচীন দেশে পাড়ি 
পঙ্কজ শীল
জন্ম নিয়ে আমরা সবাই এই ধরনীর বুকে
রং তামাসা করছি রোজই মত্ত হয়ে সুখে।
এলাম কেনো এই ভূবনে, ভাবছি কি আর আমি?
শুনো সকল মানবজাতি,এই কথাটাই দামী।
অল্পতে নয় কেউ সন্তুষ্ট,চাচ্ছে মনে বেশী
অন্যদেহে আঘাত করে বাড়ায় নিজের পেশী।
বলার বেলায় যায় এগিয়ে শূন্য কেনো কাজে?
শতভাগে দেহের বলে,শূন্যতা কী সাজে!
যেমন বলো তেমন লড়ও বলবে কথা বীরে
অল্পদিনে পূর্ণতাতে ভরবে তোমার নীড়ে।
বাঁচতে হলে কষ্ট তুমি আঁকড়ে ধরো বুকে
ধৈর্য ধরো সকল বেদন,থাকবে চিরসুখে।
মরতে গেলে রেলের নিচে দিতে পারো গলা!
বাঁচা হলো কষ্ট বয়ে সৎপথে ভাই চলা।
সময়মতো যেতে হবে সাজ সকালে বাড়ি,
হৃদয়মাঝে শান্তি পেতে ছাড়ো জমিদারি।
ছুটির সময় হলে তোমার,ঘন্টা পড়বে বেলে
দু-চোখ তোমার বন্ধ হবে,রবেনা আর মেলে।
হর্ন দিয়ে সময়মতো পৌঁছবে এসে গাড়ি,
সেদিন তোমায় দিতে হবে অচীন দেশে পাড়ি।