ArabicBengaliEnglishHindi

মা


প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২২, ৩:৩২ অপরাহ্ণ / ৫৭
মা
মুহাম্মদ রুম্মান ইসলাম
মা তুমি সন্তানের প্রয়োজনে খোদার অমূল্য অর্পিত দান।
ধরণীর পাত্রে রোহিতো সম্পদে  নর নিমজ্জিত মোহে, বিভব খোঁজে মাতাল মানব ,ছুটে চলে কীট খেপা অনল টানে।
মহৎ জান্নাত আধার ডিঙিয়ে আগ্নেয়গিরি পথ ধরে।
আছে যত সম্পদ  মা পৃথিবীর বুকে নরকে আকৃষ্ট করে,
যা কিছুর লালসা মোহে,মানব ছোটে বিলাসী সম্পদ ঢুরে।
দিনকে পাল্টিয়ে রাত্রি,রাত্রিকে করিয়া দিন তাঁর সব,
হয়ে যাবে বিলীন উদার দরদি মা তোমার ভালোবাসা মাঁখা,
দয়ার আঁচল খানি মহান আল্লাহর দরবারে ধরো যদি,
দুই হাত তুলিয়ে একটু উঁচিয়ে নয়ন হীরক দামে।
কৃষ্ণগহ্বরে পতিত-নিমজ্জিত তারকারাজি ছোট অতি,
খর্ব বস্তুতে তেমনি ক্ষুদ্র মা পৃথিবীর তুচ্ছ মোহ ।
তোমার ভালোবাসা দয়া-মমতা মাঁখা স্নেহের আঁচল দ্বারে।
মম ধরা কাবার প্রথম দুয়ার মা তুমি মম গুগল নেট,
হাজারো প্রশ্ন সুধিয়া বুঝেছি মা রবের অজস্র কৃপা।
যবে সন্তানকে তৃপ্তির ঢেকুর তুলিয়া মা আঁচল দ্বারা,
মুছেছো বৎস মুখ উহারি শুকরিয়া পরিশোধ যোগ্য নহে।
রবের ভয়াবহ দোযখে লক্ষ সন লক্ষ বার ঘুরে ফিরে।
বলছি না মা এক বিন্দু ও বাড়িয়ে বানিয়ে নিজ ইচ্ছা হতে।
আমিও ভার বুঝি, যদি নিজ হস্তে মা জাগিয়া-তুলিয়া ধরি।
শুনেছি ধর্মের বাণীতে বেহেস্ত জননীর পাঁয়ের তলে।
হে দয়াময় প্রভু,সেথায় যদি রয় তোমার জান্নাত লুকে।
তাহলে প্রভু, মম মায়ের ওই কোল গড়া কোন স্বর্গ দিয়ে?
হস্তে রয়েছে কি স্নেহ ভালবাসা তাহাতে রয়েছে কি বলো?
যে ,মায়ের দুগ্ধ করিয়া পান গড়া মোর এ দেহ প্রাণ বলো?
ওই অমিয় দান কোন জান্নাতের ত্রাণ মায়ের দ্বারা যাহা ,
আমি করেছি পান ,দেখেছি বারবার লক্ষ কোটিবার ভেবে।
দুনিয়াতেই পেয়েছি আমি জান্নাতের অমূল্য অমৃত সুধা‌।
পরকালে কি আছে মোর নসিবে রব তুমি,তুমিই জানো সব।
যদি নসিবে জোটে মোর পরকালের মহৎ জান্নাত করি,
করছি নিবেদন শোনো শোনো হে রব ,আকুল এই আবেদন।
জান্নাতে রাখিয়  যত্ন করে মোর জনম দুঃখিনী-দুখী ,
মায়ের ও আসন জান্নাত একটি  সুগন্ধি পুষ্প হলে ।
মা আমার পুষ্প বাগিচা,দয়াময় করুণাময় ওগো প্রভু, তোমার দরবারে নত ন্যস্ত হয়ে এক ফুলের দাবি রাখি,
বলো কেমন করে হে আল্লাহ, আমার এই আরজি টুকু  নাও।
কবুল-মঞ্জুর করিয়া যদি রাখো তোমার জান্নাতে মোরে।
তবে সেটা হয় গো যেনো প্রভু আমার মায়ের ওই কোলে প্রভু।

সাহিত্য বিভাগের আরো খবর

আরও খবর