ArabicBengaliEnglishHindi

১৭ কোটি টাকা সহায়তা পাবেন ২৮৩৬ শ্রমিক


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১৩, ২০২২, ৭:৫৩ অপরাহ্ণ / ২৪
১৭ কোটি টাকা সহায়তা পাবেন ২৮৩৬ শ্রমিক

নিজস্ব প্রতিবেদক:-  শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিল থেকে প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের দুই হাজার ৮৩৬ জন শ্রমিক ও শ্রমিক পরিবারের সদস্যদের নিয়মিত সহায়তা হিসেবে ১৭ কোটি ৬৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থানের সম্মেলনকক্ষে প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এর সভাপতিত্বে শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর ২৬তম বোর্ড সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

সভায় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, দুরারোগ্য ব্যাধিতে মৃত এবং বিভিন্ন দুর্ঘটনায় নিহত ১১৪ জন শ্রমিকের পরিবারকে এক কোটি ২১ লাখ ২৫ হাজার টাকা। দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত এবং বিভিন্ন দুর্ঘটনায় আহত দুই হাজার ৫৭৮ জন শ্রমিকদের চিকিৎসার জন্য ১৫ কোটি ৭৮ লাখ ৪৫ হাজার টাকা, শ্রমিকের মেধাবী সন্তানদের উচ্চ শিক্ষায় ৯৭ জনকে শিক্ষা সহায়তা হিসেবে ৪৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা সহায়তা দেওয়া হবে। এছাড়া ৪৭ জন শ্রমিকের মৃত্যু জনিত এবং চিকিৎসার জন্য জরুরি সহায়তা হিসেবে ২৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে বোর্ড সভায় সেটারও অনুমোদন দেওয়া হয়।

সভায় প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী অসহায় শ্রমিকদের কল্যাণে বছরান্তে লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ দশমিক ৫ শতাংশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে দেওয়ার জন্য কোম্পানি মালিকদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে। এ জন্য মালিকদের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াতে হবে। বিভিন্ন কোম্পানির মালিকরা যাতে এ তহবিলে লভ্যাংশ দেন তার জন্য শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনকে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এ পর্যন্ত এ তহবিলে ৩০৬টি কোম্পানি তাদের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ নিয়মিত জমা দিচ্ছে। বর্তমানে এ তহবিলে স্থিতির পরিমাণ প্রায় ৮০২ কোটি টাকা।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. এহছানে এলাহী, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মিনা মাসুদুজ্জামান, বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক ড. মোল্লা জালাল উদ্দিন, অর্থ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কবিরুল ইজদানী খান, শ্রম মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মহিদুর রহমান, বস্ত্র ও পাট যুগ্মসচিব সুব্রত শিকদার, শিল্প মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. সালাউদ্দিন, শ্রম অধিদপ্তরের পরিচালক বেলাল হোসেন শেখ, বাংলাদেশ এমপ্লেয়ার্স ফেডারেশনের মহাসচিব ফারুখ আহমেদ, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, মহিলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী রহিমা আক্তার সাথী।

%d bloggers like this: