ArabicBengaliEnglishHindi

সৌদি আরবের বিশ্বকাপ পরিকল্পনার সঙ্গে রোনালদোর সম্পর্ক নেই!


প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ১১, ২০২৩, ৫:৫৯ অপরাহ্ণ / ২৩
সৌদি আরবের বিশ্বকাপ পরিকল্পনার সঙ্গে রোনালদোর সম্পর্ক নেই!

স্পোর্টস ডেস্ক:- একদিন আগেই খবর ছড়িয়ে পড়েছিল, ২০৩০ বিশ্বকাপের আয়োজক হওয়ার দৌড়ে সৌদি আরবের সঙ্গে যুক্ত হবেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এজন্য তাকে নাকি বাড়তি ২০০ মিলিয়ন ইউরো পারিশ্রমিক দেওয়া হবে। কিন্তু এবার সেই খবরকে গুজব বলে উড়িয়ে দিল পর্তুগিজ উইঙ্গারের বর্তমান ক্লাব আল নাসের।
গতকাল সূত্রের বরাতে বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছিল, ২০৩০ বিশ্বকাপের আয়োজক হওয়ার দৌড়ে অংশ নেবে সৌদি আরব। এই পরিকল্পনার অংশ হবেন রোনালদো। তাকে বিশ্বকাপের শুভেচ্ছাদূত হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এই ভূমিকা পালনে রাজি হলে তাকে ২০০ মিলিয়ন ইউরো দেওয়া হবে। অর্থাৎ আল নাসের ও বিশ্বকাপের দায়িত্ব মিলিয়ে প্রায় ৪০০ মিলিয়ন ইউরো বা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৪ হাজার ৫০০ কোটি টাকা আয় করবেন রোনালদো।

কিন্তু এবার পুরো বিষয়টি অস্বীকার করেছে আল নাসের। এক বিবৃতিতে তারা লিখেছে, ‘আন নাসেরের সঙ্গে রোনালদোর চুক্তিতে বিশ্বকাপ বিডের কোনো সম্পর্ক নেই। তার পুরো মনোযোগ শুধুমাত্র আল নাসেরকে ঘিরে এবং তার লক্ষ্য ক্লাবকে সাফল্য এনে দিতে সতীর্থদের সাহায্য করা। ‘

বিশ্বকাপের আগে সাবেক ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ এরিক টেন হাগ ও ক্লাবের মালিকপক্ষ সম্পর্কে মুখ খুলে বিতর্কে জড়ান রোনালদো। এর জের ধরে কিছুদিন পরেই আনুষ্ঠানিকভাবে ইউনাইটেডের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হয় ৩৭ বছর বয়সী তারকার। বিশ্বকাপের পর ইতিহাসের সর্বোচ্চ বেতনে সৌদি লিগের ক্লাব আল নাসেরে যোগ দেন তিনি। ২০২৫ সাল পর্যন্ত এই ক্লাবে খেলবেন রোনালদো; প্রতি মৌসুমে ৭৫ মিলিয়ন ডলার বেতনে। সবমিলিয়ে এই ক্লাব থেকে তার আয় হবে ২০০ মিলিয়ন ইউরো।

‘সিবিএস নিউজ’-এর তথ্য অনুযায়ী, মূল বেতনের বাইরে আল নাসেরে নিজের ইমেজ রাইটস এবং বাণিজ্যিক চুক্তি থেকে বাকি অর্থ আয় করবেন রোনালদো। মোহামেদ আল-খেরেইজি (যিনি তার ‘সৌদি মিডিয়া গ্রুপ’ এর মাধ্যমে এর আগে চেলসির মালিকানা কিনতে চেয়েছিলেন) সৌদি সরকারের সহায়তায় রোনালদোকে চুক্তি স্বাক্ষরে রাজি করান। চুক্তি অনুযায়ী, আল নাসেরে ফুটবলীয়, বাণিজ্যিক এবং দূতিয়ালির ক্ষেত্রে ব্যাপক ক্ষমতা ভোগ করবেন রোনালদো।

এদিকে আল নাসেরে যোগ দেওয়ার পর এখনও মাঠে নামা হয়নি রোনালদোর। ইউনাইটেডের হয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলার সময় এভারটনের এক সমর্থকের মোবাইল ফোন ভাঙায় দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছেন তিনি। এর মাঝে আল নাসেরের খেলোয়াড় হিসেবে নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে তার। ক্লাবটির হয়ে সৌদি লিগে তার অভিষেক হওয়ার আগেই অবশ্য আগামী ১৯ জানুয়ারি প্রীতি ম্যাচে মাঠে নামবেন তিনি। সেই ম্যাচে আল নাসের ও আল হিলালের সম্মিলিত দলের বিপক্ষে দেখা যাবে মেসি-নেইমার-এমবাপ্পের পিএসজিকে। অর্থাৎ হয়তো শেষবারের মতো দেখা মিলবে মেসি-রোনালদো দ্বৈরথের।

%d bloggers like this: