ArabicBengaliEnglishHindi

রাষ্ট্রদূতদের হস্তক্ষেপ মেনে নেওয়া যায় না: কৃষিমন্ত্রী


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১৬, ২০২২, ৬:৪৭ অপরাহ্ণ / ২১
রাষ্ট্রদূতদের হস্তক্ষেপ মেনে নেওয়া যায় না: কৃষিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন:- বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে বিদেশি রাষ্ট্রদূতদের অযাচিত হস্তক্ষেপ মেনে নেওয়া যায় না বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক।

বুধবার মেহেরপুরের মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

সোমবার রাজধানীর একটি হোটেলে মিট দ্য অ্যাম্বাসের নামে এক অনুষ্ঠানে জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি ২০১৮ সালের নির্বাচন নিয়ে বলেন, ‘আমি শুনেছি, পুলিশ কর্মকর্তারা আগের রাতে ব্যালট বাক্স ভর্তি করেছেন। আমি অন্য কোনো দেশে এমন দৃষ্টান্তের কথা শুনিনি।’ সব দলের অংশগ্রহণে বাংলাদেশে প্রত্যাশার কথাও জানান রাষ্ট্রদূত।

জাপানের রাষ্ট্রদূতের ওই মন্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে জাপান কেন, কোনো রাষ্ট্রদূতের নাক গলানো আমরা কখনোই মেনে নিতে পারি না। তাদেরকে আবারও সর্তক করা হবে। বাংলাদেশ স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র। একটি রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা এদেশকে স্বাধীন করেছি।’

দেশের আত্মমর্যাদা রক্ষায় কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

তিনি বলেন, সংবিধানের ১২৬ ধারায় উল্লেখ আছে, নির্বাচন পরিচালনা করবে নির্বাচন কমিশন। সেখানে তাদের সহযোগিতা করবে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ। এটা তাদের নৈতিক দায়িত্ব। প্রধানমন্ত্রী তাদের এমন নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হবে। বিএনপি যতই আন্দোলন–সংগ্রাম করুক, তা রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করা হবে।

ডলার সঙ্কট নিয়ে তিনি বলেন, সার, জ্বালানি তেল ও রপ্তানি খাতে সরকারকে প্রচুর পরিমাণের ডলার ভুর্তকি দেওয়া লাগছে। ফলে দেশে ডলার সঙ্কট আছে। তারপরও দেশে খাদ্য সঙ্কট হবে না। খাদ্য মজুদ রয়েছে পর্যাপ্ত।

দেশে দুর্ভিক্ষ আসার কোনো সুযোগ নেই মন্তব্য করে কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘দেশে প্রচুর পরিমাণ খাদ্যশস্য উৎপাদন হচ্ছে। দেশ কৃষিক্ষেত্রে অনেক এগিয়েছে। আমাদের কৃষকেরা এখন খাদ্য উৎপাদনে অনেক অনেক সক্রিয়। বিশেষ করে চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর অঞ্চলের কৃষকেরা ভুট্টা ও সবজি চাষে ব্যাপক সফলতা পেয়েছেন। সরকার রাসায়নিক সারে ভর্তুকি দিচ্ছে। কৃষকদের জন্য সরকার সব ধরনের সুযোগ তৈরি করতে কাজ করছে।’

মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, সাহিদুজ্জামান খোকন এমপি, মেহেরপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, মেহেরপুর জেলা প্রশাসক মনসুর আলম খান ও পুলিশ সুপার রাফিউল আলমসহ কৃষি মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

%d bloggers like this: