ArabicBengaliEnglishHindi

গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির শুনানি জানুয়ারিতে


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১২, ২০২২, ৬:৩৫ অপরাহ্ণ / ২৬
গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির শুনানি জানুয়ারিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক:-  আগামী জানুয়ারিতে গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির বিষয়ে শুনানি করবে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। পাইকারি পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বাড়ানো ফলে গ্রাহক পর্যায়ে দাম বাড়াতে বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানিগুলোর আবেদনের প্রেক্ষিতে এই শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

বিইআরসি সচিব ব্যারিস্টার খলিলুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, আগাসী ৮ ও ৯ জানুয়ারি রাজধানীর বিয়াম ফাউন্ডেশনের শহীদ এ কে এম শামসুল হক খান অডিটরিয়ামে এ শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দর বৃদ্ধি করা হবে কিনা, সেই সিদ্ধান্ত নেবে বিইআরসি।

বিদ্যুতের খুচরা পর্যায়ে দাম বাড়াতে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড, ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি লিমিটেড, ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড এবং নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি লিমিটেড থেকে খুচরা পর্যায়ে বিদ্যুতের ট্যারিফ পুনর্নির্ধারণের জন্য কমিশনে আবেদন করা হয়েছে।

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন আইন, ২০০৩ এবং বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন বিদ্যুৎ বিতরণ (খুচরা) ট্যারিফ প্রবিধানমালা, ২০১৬ অনুযায়ী আবেদনসমূহ পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কমিশনের মাধ্যমে গঠিত কারিগরি মূল্যায়ন কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী ইতোমধ্যে কমিশন গ্রহণ করেছে।

বিইআরসি পক্ষ থেকে শুনানিতে আগ্রহী ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা সংস্থাকে আগামী ১ জানুয়ারির মধ্যে শুনানি-পূর্ব লিখিত বক্তব্য ও মতামত কমিশনে পাঠানোর অনুরোধ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে শুনানিতে অংশগ্রহণের জন্য কমিশনে নাম তালিকাভুক্তির জন্যও তাদের অনুরোধ করেছে বিইআরসি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, তালিকাভুক্ত ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা সংস্থা উল্লিখিত তারিখে অনুষ্ঠেয় শুনানিতে অংশগ্রহণপূর্বক বাবিউবো, বাপবিবো, ডিপিডিসি, ডেসকো, ওজোপাডিকো এবং নেসকোর বিদ্যুতের খুচরা ট্যারিফ পুনর্নির্ধারণের প্রস্তাব/আবেদন বিষয়ে বিশ্লেষণধর্মী তথ্য-উপাত্ত ও সংশ্লিষ্ট দলিলাদি উপস্থাপন করতে পারবেন।

পাইকারি পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির ঘোষণার দুই দিন পরই খুচরা পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বাড়াতে আবেদন করে ছয়টি বিতরণ কোম্পানি। সবার প্রথম দাম বাড়াতে আবেদন করে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি)। বিপিডিবিসহ আরও ছয়টি কোম্পানি বিদ্যুতের দাম বাড়াতে আবেদন করে। ইউনিট প্রতি  সর্বোচ্চ ১ টাকা ৪৭ পয়সা দাম বাড়াতে আবেদন করে প্রতিষ্ঠানগুলো।

প্রসঙ্গত, গত ২১ নভেম্বর বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) পাইকারি পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম ১৯ দশমিক ৯২ শতাংশ বৃদ্ধি করে। এতে ইউনিট প্রতি বিদ্যুতের দাম বেড়ে যায় ১ টাকা ৩ পয়সা। এই ঘোষণার ফলে বিতরণ কোম্পানিগুলোকে বাড়তি দামে বিদ্যুৎ কিনতে হচ্ছে, যে কারণ কোম্পানিগুলো খুচরা পর্যায়ে দাম বাড়াতে বিইআরসির কাছে আবেদন করে।

%d bloggers like this: