ArabicBengaliEnglishHindi

গাইবান্ধায় ছিনতাই চক্রের এক নারী সদস্য কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৪, ২০২২, ৬:৩৯ অপরাহ্ণ / ১৯
গাইবান্ধায় ছিনতাই চক্রের এক নারী সদস্য কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ
নিজস্ব প্রতিনিধি ঃ
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে অটোবাইক চালককে চেতনানাশক ওষুধ মেশানো জুস খাওয়াইয়ে  অজ্ঞান করে অটোবাইক ছিনতাইকালে ছিনতাই চক্রের নারী সদস্য সাবানা বেগম (৫২) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
 ৪ নভেম্বর ২০২২ ইং  রোজ শুক্রবার বিকেলে সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরকার ইফতেখারুল মোকাদ্দেম গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এর আগে, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নের দক্ষিণ ধোপাডাঙ্গা এলাকা থেকে ওই নারীকে গ্রেফতার করা হয়। সাবানা বেগম উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের কিশামত সর্বানন্দ গ্রামের সোলেমান মিয়ার স্ত্রী।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গাইবান্ধা সদর উপজেলার লক্ষীপুরহাট যাওয়ার জন্য উপজেলার বালারছিড়া মোড় থেকে ছিনতাইকারী চক্রের তিন সদস্য আঙ্গুর মিয়া (২২) নামীয় এক অটোবাইক চালকের অটোবাইক ভাড়া করে রওয়ানা হন।  উপজেলার পূর্ব বেলকা গ্রামের আব্দুল আজিজ মিয়ার ছেলে অটোবাইক চালক আঙ্গুর মিয়া। যাত্রাকালে পথিমধ্যে ওই তিন যাত্রীর মধ্যে দুইজন স্বামী-স্ত্রীর অভিনয় করে আঙ্গুর মিয়াকে চেতনানাশক অষুধ মেশানো জুস খেতে দেন। সরল বিশ্বাসে জুস খাওয়ার কিছুক্ষন পর দক্ষিণ ধোপাডাঙ্গা নামক স্থানে পৌঁছা মাত্রই আঙ্গুর মিয়া জ্ঞান হারালে তাকে নামীয়ে দিয়ে ছিনতাইকারী চক্র অটোবাইকটি নিয়ে চম্পট দেন। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের সন্দেহ মনে হলে তারা থানা পুলিশকে খবর দিয়ে ছিনতাইকারী চক্রকে ধাওয়া করে।
থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সেরাজুল হকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ দ্রুতগতিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ছিনতাইকারী চক্রের নারী সদস্য শাবানা বেগমকে গ্রেফতার করেন এবং ছিনতাই হওয়া অটোবাইকটি উদ্ধার করেন।
ছিনতাইকারী চক্রের দুই পুরুষ সদস্য রাতের অন্ধকারে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। এ ঘটনায় আঙ্গুরের পিতা আব্দুল আজিজ বাদি হয়ে তিনজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরকার ইফতেখারুল মোকাদ্দেম বলেন, চক্রের সদস্য সাবানা বেগমকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পলাতক আসামিদের গ্রেফতারে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
%d bloggers like this: