ArabicBengaliEnglishHindi

ইউক্রেন থেকে তিনটি জাহাজ ছাড়বে দিনে : তুরস্ক


প্রকাশের সময় : আগস্ট ৪, ২০২২, ১:৩০ পূর্বাহ্ণ / ৩৪
ইউক্রেন থেকে তিনটি জাহাজ ছাড়বে দিনে : তুরস্ক

বিশ্বে মোট গম রপ্তানির এক-তৃতীয়াংশই রাশিয়া ও ইউক্রেন থেকে হয়ে থাকে। তবে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে কৃষ্ণসাগরে শস্য সরবরাহ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিশ্বজুড়ে খাদ্যসংকট দেখা দেয়। এ সংকট মোকাবিলায় গত ২২ জুলাই জাতিসংঘ ও তুরস্কের মধ্যস্থতায় ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে শস্য রপ্তানির এক ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি স্বাক্ষরের পরপরই বিশ্ববাজারে গমের দাম কমতে শুরু করে।

ইউক্রেন ও রাশিয়ার চুক্তির আওতায় ইউক্রেনের চেরনোমোরস্ক, ওদেসা ও পিভদেন্নি বন্দর দিয়ে জাহাজ চলাচল নিশ্চিত করা হয়েছে। চুক্তির আওতায় ইউক্রেন থেকে শস্য রপ্তানি কার্যক্রম তত্ত্বাবধান করতে গতকাল বুধবার ইস্তাম্বুলে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশেষ যৌথ সহযোগিতা কেন্দ্র চালু করেছে তুরস্ক। যুদ্ধরত রাশিয়া ও ইউক্রেন ছাড়াও তুরস্ক ও জাতিসংঘের সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তাদের ওই কেন্দ্রে নিযুক্ত করা হয়েছে।

ইউক্রেন যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি জড়িত: রাশিয়া

এদিকে ইউক্রেন যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সরাসরি সম্পৃক্ততা আছে বলে অভিযোগ তুলেছে রাশিয়া। মঙ্গলবার রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এ অভিযোগ করেছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর এই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে সরাসরি যুদ্ধে জড়িত থাকার অভিযোগ তুলল মস্কো।

টেলিগ্রাফকে ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা বাহিনীর সহকারী প্রধান ভাদিম স্কিবিৎস্কি বলেন, প্রতিটি হামলার আগে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউক্রেনের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা এ নিয়ে আলোচনা করেন। তাঁদের সঙ্গে আলোচনা করে হামলা করা হয়। তবে ভাদিম স্কিবিৎস্কি একই সঙ্গে এ-ও বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা সরাসরি লক্ষ্যবস্তু-সংক্রান্ত তথ্য প্রদান করছেন না। ওই বক্তব্যের পর রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় অভিযোগ করেছে, ভাদিমের ওই সাক্ষাৎকারে মনে হচ্ছে, রাশিয়া–ইউক্রেন যুদ্ধে সরাসরি সম্পৃক্ত রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।