ArabicBengaliEnglishHindi

স্বাচিপের সম্মেলন উৎসবমুখর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, যান চলাচলে নিয়ন্ত্রণ


প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৫, ২০২২, ৭:৫৪ অপরাহ্ণ / ২২
স্বাচিপের সম্মেলন উৎসবমুখর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, যান চলাচলে নিয়ন্ত্রণ
নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ
আওয়ামীপন্থি চিকিৎসকদের সংগঠন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) পঞ্চম জাতীয় সম্মেলন ঘিরে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও তার আশপাশের এলাকায় উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। স্বাচিপ সদস্য ছাড়াও সমাবেশস্থলে উপস্থিত হয়েছেন মেডিকেলের বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থী, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীসহ সাধারণ নেতাকর্মী। সমাবেশের প্রধান ফটকে স্বাচিপের সদস্য নয় এমন অনেকেই জড়ো হয়েছেন।
সরজমিনে দেখা যায়, স্বাচিপ জাতীয় সম্মেলনের কারণে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের আশপাশের এলাকায় যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করছে ঢাকা মহানগর পুলিশ। সমাবেশে নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে দিতে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের আশপাশের রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। এছাড়া সম্মেলন এলাকার কোন কোন রাস্তা বন্ধ থাকছে বা ডাইভারশন করা হচ্ছে, তা জানিয়েছে মহানগর পুলিশের রমনা বিভাগ। সম্মেলনে আসা গাড়িগুলো কোথায় রাখতে হবে, দেওয়া হয়েছে সে নির্দেশনাও।
শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনটির সম্মেলন হতে যাচ্ছে। সংগঠনের নতুন সভাপতি ও মহাসচিব কে হচ্ছেন, তা নিয়ে সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে চলছে আলোচনা। প্রধান অতিথি হিসেবে এরই মধ্যে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনে উপস্থিত হয়েছেন।
দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে স্বাচিপ সদস্যরা সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন। লক্ষীপুরের রামগঞ্জ উপজেলা থেকে এসেছেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্যকর্মী রিয়াদ হোসেন। তিনি জানান, চিকিৎসকরা সমাবেশে আসার জন্য বলেছেন। তাই এসেছি। অনুষ্ঠানে আসার জন্য আমাদের কার্ড দেওয়া হয়েছে। চিকিৎসক ছাড়া আরও অনেকেই এসেছেন।
স্বাচিপের পাবনা জেলা শাখার ব্যানার নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন পাবনায় অধ্যয়নরত বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থী। তারা সমাবেশস্থলে প্রবেশের জন্য সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে আছেন।
লক্ষ্মীপুর থেকে আসা সিয়াম বলেন, আমার আম্মা একজন নার্স। আমাকে এখানে আসতে বলেছেন। লক্ষ্মীপুর থেকে এসেছি।
সংগঠনের প্রতিটি উপদল ভিন্ন ভিন্ন রঙের টুপি পরে নিজেদের সাংগঠনিক শক্তির জানান দিচ্ছে। চিকিৎসক ছাড়াও স্বাস্থ্য পেশায় জড়িত অনেকে সম্মেলনে এসেছেন।
স্বাচিপের সবশেষ সম্মেলন হয়েছিল ২০১৫ সালের নভেম্বরে। তখন এম ইকবাল আর্সলান সভাপতি ও এমএ আজিজ মহাসচিব হন। এখন চিকিৎসকেরা সংগঠনের নতুন নেতৃত্ব খুঁজছেন। কিন্তু কে সভাপতি ও মহাসচিব হবেন, তা নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারছেন না।
%d bloggers like this: