ArabicBengaliEnglishHindi

বিশ্ব ইজতেমার শেষ পর্ব: এক ময়দানে ৬২ দেশের মুসল্লি


প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ২১, ২০২৩, ৬:০৯ অপরাহ্ণ / ১৮
বিশ্ব ইজতেমার শেষ পর্ব: এক ময়দানে ৬২ দেশের মুসল্লি

জেলা প্রতিনধি :- গাজীপুর: এবারের বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় ও শেষ পর্বে টঙ্গী তুরাগ তীরে ইসলামের টানে দেশ-বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লি একত্রিত হয়েছেন। এরমধ্যে সৌদি আরব, মালয়েশিয়া, ভারত, পাকিস্তানসহ ৬১টি দেশের ৭ হাজার ৭২৫ জন বিদেশি মুসল্লি রয়েছেন।

বিশ্ব ইজতেমা দ্বিতীয় পর্বের মিডিয়া সমন্বয়কারী ও নিজামুদ্দীন অনুসারী মো. সায়েম জানান, শনিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুর পর্যন্ত ৬১টি দেশের ৭ হাজার ৭২৫ জন বিদেশি মুসল্লি এই পর্বের বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিয়েছেন। এছাড়াও বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলের কয়েক লাখ মুসল্লি রয়েছেন।

আল্লাহকে রাজি-খুশি ও বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় মাওলানাদের বয়ান শুনতে এসব তাদের এখানে আসা। প্রতি বছরই টঙ্গীর তুরাগ তীরে এসব মুসল্লিদের মিলন মেলা হয়। তিন দিনব্যাপী চলে বয়ান। আখেরি মোনাজাত শেষে ইসলামের দাওয়াত দিতে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েন তাবলীগ জামাতের অনুসারীরা। আগে দেশ-বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লির অংশগ্রহণে এক পর্বে অনুষ্ঠিত হতো বিশ্ব ইজতেমা। পরে ময়দানে জায়গা না হওয়ায় বাংলাদেশে ৬৪ জেলাকে দুটি ভাগে ৩২ জেলায় ভাগ করে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হতো। কিন্তু এরপর বিশ্ব ইজতেমায় মাওলানা সাদ কান্ধলভি ও মাওলানা জুবায়ের নামে দুটি গ্রুপ হওয়ায় এখন দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হয় বিশ্ব ইজতেমা।

ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা বয়ান শোনার পাশাপাশি নামাজ, রান্নাবান্না ও গোসলসহ প্রয়োজনীয় কাজকর্ম সেরে নিচ্ছেন ইজতেমা ময়দানে।

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে অংশ নিতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা মুসল্লিদের মধ্যে শনিবার পর্যন্ত ৫ জন ইন্তেকাল করেছেন।

গত ১৩ জানুয়ারি শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব এবং ১৫ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতে তা শেষ হয়। এরপর গত বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) বাদ আছর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আনুষ্ঠানিকতা। আগামী রোববার (২২ জানুয়ারি) আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের (২০২৩ সালের) বিশ্ব ইজতেমা।

%d bloggers like this: