ArabicBengaliEnglishHindi

বাণিজ্য মেলা শুরু ১ জানুয়ারি, প্রত্যাশা ২০০ কোটি টাকার বেশি


প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৩১, ২০২২, ৫:২০ অপরাহ্ণ / ১১
বাণিজ্য মেলা শুরু ১ জানুয়ারি, প্রত্যাশা ২০০ কোটি টাকার বেশি

স্টাফ রিপোর্টার:- ঢাকা: নতুন বছরের প্রথম দিন তথা রোববার (১ জানুয়ারি) থেকে শুরু হচ্ছে ২৭তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। রাজধানীর উপকণ্ঠ পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী এক্সিবিশন সেন্টারে (বিবিসিএফইসি) শুরু হবে ২০২৩ সালের বাণিজ্য মেলা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মেলার উদ্বোধন করার কথা রয়েছে।
শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) পূর্বাচল নতুন শহরের বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে (বিবিসিএফইসি) এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য দেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

মন্ত্রী বলেন, নতুন বছরের পথম দিন (১ জানুয়ারি) বিবিসিএফইসি-এ প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা (ডিআইটিএফ)-এর ২৭তম আসরের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করবেন।

এ বছর মেলা থেকে ২০০ কোটি টাকার বেশি স্পর্ট অর্ডারের আশা প্রকাশ করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, বাণিজ্য মেলা আসলে আয়ের জন্য নয়। মূল বিষয় হলো পণ্য প্রদর্শন করে রপ্তানি বাণিজ্যে আমরা কতোখানি কাজে লাগাতে পারি। স্পট অর্ডার যেটা গত বছর ২০০ কোটি টাকার অর্ডার পেয়েছিলাম এ বছর সেটা আরও বেশি হবে বলে আশি করছি। আমাদের উৎপাদিত পণ্য আন্তর্জাতিক অঙ্গণে পরিচয় করিয়ে দেওয়াই মেলার মূল উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য। আর সার্বিকভাবে ব্যবসা-বাণিজ্যের পরিধি বাড়ানো।

রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, প্রতিবছর আমাদের রপ্তানি বাড়ছে। গত বছর আমাদের ৫১ বিলিয়ন ডলারের রপ্তানির লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও আমরা ৬০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি করতে পেরেছি। এ বছর ৬৭ বিলিয়ন ডলার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছি। চলতি বছরের নভেম্বর পর্যন্ত ১০ শতাংশ গ্রোথ হয়েছে। তারপরও কোভিড পরবর্তী অবস্থা, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ পরিস্থিতিতেও আমরা আশা করছি লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী অর্জন করতে পারব৷

এ বছর মেলার পরিধি বাড়ানো হয়েছে বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী। বলেন, মেলার আকার বাড়বে এবার। গত বছরের তুলনায় ১০০টির বেশি স্টল অংশ নিয়েছে।

জানা গেছে, এবারের বাণিজ্য মেলায় দেশীয় বস্ত্র, মেশিনারিজ, কার্পেট, কসমেটিক্স অ্যান্ড বিউটি এইডস, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্সস, পাট ও পাট জাত পণ্য, চামড়া/আর্টিফিসিয়াল চামড়া ও জুতাসহ চামড়া জাত পণ্য, স্পোর্টস গুডস, স্যানিটারিওয়্যার, খেলনা, স্টেশনারি, ক্রোকারিজ, প্লাস্টিক মেলামাইন পলিমার, হারবাল ও টয়লেট্রিজ, ইমিটেশন জুয়েলারি, প্রক্রিয়াজাত খাদ্য, ফাস্টফুড, হস্তশিল্পজাত পণ্য, হোম ডেকর, ফার্নিচার ইত্যাদি পণ্য প্রদর্শীত হবে।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বাণিজ্য সংগঠন (ডিটিও) অনুবিভাগের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) হাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত সচিব (রপ্তানি) মো: আব্দুর রহিম খান, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) ভাইস চেয়ারম্যান এএইচএম আহসান, ইপিবির পরিচালক মাহবুবুর রহমানসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

%d bloggers like this: