ArabicBengaliEnglishHindi

পঞ্চগড়ে ঋন খেলাপির কারনে একজনের মনোনয়ন বাতিল


প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২২, ৩:৪৬ অপরাহ্ণ / ২৬
পঞ্চগড়ে ঋন খেলাপির কারনে একজনের মনোনয়ন বাতিল

 মোঃ মোমিন ইসলাম সরকার পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড়ে আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে তেঁতুলিয়া উপজেলা (২নং ওয়ার্ড) থেকে সাধারণ সদস্য পদপ্রার্থী মোঃ আব্দুল ছাত্তার নামের একজনের ঋণ খেলাপির কারণে প্রার্থিতা বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন । রবিবার (১৮-সেপ্টেম্বর) জেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র চুড়ান্ত যাচাই বাছাই করা হয় । এ সময় তেঁতুলিয়া (২ নং ওয়ার্ডের) সাধারণ সদস্য পদপ্রার্থী মোঃ আব্দুল ছাত্তার জনতা ব্যাংক লিমিটেডের এর কাছে ঋণ খেলাপি থাকার কারণে তার প্রার্থিতা বাতিল করা হয় ।

 

এর আগে গত (৩১-আগস্ট ) তারিখে জেলা প্রশাসক পঞ্চগড় ও রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় হতে জেলা পরিষদ নির্বাচন বিধিমালা,২০১৬ এর বিধি ১০ অনুযায়ী যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয় তাতে ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ তারিখ অথবা তার পূর্ববর্তী যে কোন দিনে সকাল আটটা থেকে বিকাল তিনটার সময় মনোনয়ন পত্র গ্রহণ বা জমা দান করা যাবে । আবার জেলা পরিষদ আইন ২০০০ এর ৬ (২) ধারা মতে প্রার্থীর অযোগ্যতা এর (ঝ) মতে তার নিকট কোন ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান হতে গৃহীত কোন ঋন মেয়াদোত্তীর্ণ অবস্থায় অনাদায়ী থাকে । প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী এই কারণে মোঃ আব্দুল সাত্তার এর প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে । এ বিষয়ে, জেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, ঋন খেলাপির কারনে তার মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে ।

 

সে চাইলে উদ্ধতর্ন কর্তৃপক্ষের কাছে আপিল করতে পারে । প্রার্থী মোঃ আব্দুল ছাত্তার বলেন, আমি গত (১৫-সেপ্টেম্বর) ইং তারিখে জনতা ব্যাংক লিমিটেড এর পাওনা পরিশোধ করে দেই । কিন্তু পরবর্তী ১৬/১৭ সেপ্টেম্বর সরকারি ছুটির কারনে ব্যাংক কতৃপক্ষ পরিশোধের কাগজ আমাকে দিতে পারে নি । আপনার কাছে পাওনা জনতা ব্যাংক এর পাওনা ২ লাখ ৫ হাজার । আপনি গত ১৫ সেপ্টেম্বর ১লাখ ৫০ হাজার টাকা দিয়েছেন । অবশিষ্ট ৫৫ হাজার টাকা ব্যাংক এখনো আপনার কাছে পাওনা রয়েছে ? এমন প্রশ্নের জবাবে প্রার্থী আব্দুল ছাত্তার বলেন, আমি সমস্ত ঋণ পরিষদ করেছি । লোন হালনাগাত করেছি । কিন্তু এখন বিষয় হলো, এখন পর্যন্ত তিনি ঋণ খেলাপিতে রয়েছেন । তিনি ব্যাংক এর ক্লিয়ারেন্স পান নি ।

 

যেহেতু নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তিনি ঋণ খেলাপির মধ্যে তাহলে আপিল করে প্রার্থীতা পুনঃ বহাল করতে পারবেন কি না সেটা নিয়ে আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে সাধারণ ভোটার ও প্রার্থীদের মধ্যে । এর আগে গত (১৬- মার্চ) কালের কণ্ঠ পত্রিকায় “গ্রাম আদালতের বিচারক চেয়ারম্যান এর ভাই” এই মর্মে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয় । যেখানে গ্রাম আদালতের বিচার কার্য পরিচালনা করেন চেয়ারম্যান এর বড়ভাই এই আব্দুল সাত্তার ।