কুপিয়ে জখম এমপিকে কটাক্ষ করে স্ট্যাটাস, যুবদল নেতাকে 


প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ২, ২০২৩, ৫:৫০ অপরাহ্ণ / ৫১
কুপিয়ে জখম এমপিকে কটাক্ষ করে স্ট্যাটাস, যুবদল নেতাকে 

জেলা প্রতিনিধি:-মাগুরা:- যুবদলের এক নেতাকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখরকে কটাক্ষ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় আহত ওই যুবদল নেতা অভিযোগ করেছেন, সম্প্রতি স্থানীয় সংসদ সদস্যকে নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তার ওপর হামলা করেছেন।

রোববার (০১ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে মাগুরা শহরের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সামনের সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

আহত মো. মারুফ হোসেন (৪২) মাগুরা জেলা যুবদলের সদস্য। মাগুরা সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ ছাত্রদলের আহ্বায়ক ও সাধারণ সম্পাদক ছিলেন তিনি।

স্থানীয় বিএনপির নেতাকর্মীরা জানান, জেলা ও দায়রা জজ আদালতের ফটকের পাশে যুবদল নেতা মারুফের একটি দোকান আছে। সেখানে এক আইনজীবীর সঙ্গে কাজ শেষে সন্ধ্যা সোয়া সাতটার দিকে দোকান বন্ধ করে দুজন বের হচ্ছিলেন। এ সময় পাশের গলিতে একদল অস্ত্রধারী যুবক অবস্থান নেন। এমন পরিস্থিতিতে তারা দ্রুত বের হতে গেলে অস্ত্রধারীরা তাদের ধাওয়া করেন। সফিক নামের ওই আইনজীবী কেশব মোড়ের দিকে পালিয়ে যান। কিন্তু যুবদল নেতা মারুফকে ধরে চাপাতি, রামদা ও ছ্যান দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যান হামলাকারীরা। এরপর আহত যুবদল নেতাকে মাগুরা ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসক ও আহত ব্যক্তির স্বজনরা বলেন, মারুফের মাথায় ও দুই হাতে ধারালো অস্ত্রের আঘাত আছে। রাতেই তাকে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার যুবদল নেতা মারুফ হোসেন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, গত ১৪ ডিসেম্বর স্থানীয় এমপি বিএনপির নেতাকর্মীদের দেখে নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়ে একটি বক্তব্য দিয়েছিলেন। সেটি নিয়ে প্রতিবেদন হয়েছিল। ওই প্রতিবেদন আমাদের কোনো এক নেতা শেয়ার করেছিলেন, সেখানে আমি মন্তব্য করেছিলাম। এছাড়া একদিন আগে আমার ফেসবুক ওয়ালে একটি স্ট্যাটাস দিই। এই দুটি ঘটনার জেরে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা হামলা করেছেন। তবে আমি যা লিখেছি, তাতে নির্দিষ্ট কোনো এমপির নাম নেই, জেলার নামেরও উল্লেখ নেই।

মাগুরা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাকায় বিএনপির গণসমাবেশে অংশ নেওয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখর। তিনি বলেছিলেন, ‘আমি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলতে চাই, মাগুরার যাদের পল্টনের সমাবেশ বা পুরান ঢাকার সমাবেশে দেখা গেছে, তাদের বিরুদ্ধে কিন্তু আমরা ব্যবস্থা নেব। এই মাগুরায় আমরা কোনো সন্ত্রাসী, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিকে এক ইঞ্চি জায়গা দেব না। ’