কালিয়ায় হত্যাচেষ্টা ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে প্রতিপক্ষের সেচযন্ত্র ভাংচুরের অভিযোগ 


প্রকাশের সময় : এপ্রিল ৮, ২০২৩, ৮:২৬ অপরাহ্ণ / ১১৬
কালিয়ায় হত্যাচেষ্টা ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে প্রতিপক্ষের সেচযন্ত্র ভাংচুরের অভিযোগ 
স্টাফ রিপোর্টার, মো  মামুন মোল্যাঃ
কালিয়ায় হত্যাচেষ্টা ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে প্রতিপক্ষের সেচযন্ত্র ভাংচুরের অভিযোগ  পাওয়া গেছে। সরজমিন ঘরে জানা যায়, কালিয়া উপজেলার তেলিডাঙ্গা গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আ ঃ গফফার শেখের ওপর প্রতিপক্ষের  অতর্কিত হামলায় গুরুত্বর আহত হয় আঃ গফফার শেখের ওপর প্রতিপক্ষের  অতর্কিত হামলায় গুরুত্বর আহত হয়। এ ঘটনায় তার চাচা আনোয়ার হোসেন নড়াগাতী থানায় একটি অভিযোগ করেছেন। আঃ গফফার শেখ গ্রামের জামে মসজিদের মোয়াজ্জিন এবং গ্রাম্য সালিশ বিচার করেন।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে (১৪মার্চ) ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে রহমান খাকীর ছেলে আমিনুর খাকী(৩২) এবং বাবলু খাকী (৪২) ছবুর খাকীর ছেলে সোয়েব খাকী (৩০), মালেক খাকীর ছেলে মরফুদুল খাকী (৩০), মিজানুর খাকী (৪০) মনিরুল খাকী (৩৬) সহ অজ্ঞতদ্বয়। এরা সামুরা,রামদা,চাইনিচ কুড়াল,বল্লব,লোহার রড, দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আঃ গফফার  শেখকে অকর্কিত হামলা করে। এ সময় তার ডাক চিৎকারে প্রতিবেশী আক্তার শেখ (৬০) হাবিবুর রহমান শেখ(২৫) নাইম শেখ(১৭) নাছিমা খাতুন (৪৫)সহ আরো অনেকে ছুটে এলে তারা দৌড়ে পালিয়ে যায়। আঃ গফফার শেখ কে কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্স হাসপাতালে নিলে তার অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। তেলিডাঙ্গার ওহিদুল গাজী বলেন, এই ঘটনাকেই  ধামাচাপা দিতে অভিযুক্ত আমিনুর খাকী গং সেচযন্ত্র ভাংচুর মটর চুরির নাটক সাজিয়েছে যা সম্পূর্ণ মিত্যা । প্রতিপক্ষ  পল্লি চিকিঃসক আমিনুর খাকী বলেন, গ্রামে দলাদলি আছে আমি একটা দলের নেতৃত্ব দেই। এজন্যই আমার বিরুদ্ধে এই অভিয়োগ। তবে এ ঘটনায় আমি জড়িত নয় । ওই সময়ে আমি একটি ডেলিবারি রুগির বাড়িতে ছিলাম।
এ বিষয়ে  নড়াগাতী  থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকান্ত সাহা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা দুইপক্ষকে নিয়ে সমাধানের চেষ্টা করছি।