ArabicBengaliEnglishHindi

কালকে টিকিট পাবেন, সেই আশায় লাইনেই থেকে গেলেন আদিয়াত


প্রকাশের সময় : জুলাই ১, ২০২২, ২:১৪ অপরাহ্ণ / ৩০
কালকে টিকিট পাবেন, সেই আশায় লাইনেই থেকে গেলেন আদিয়াত

ঈদে বোনকে নিয়ে গ্রামের বাড়ি দিনাজপুরের পার্বতীপুরে যাবেন ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আদিয়াত হাসান। ঈদ উপলক্ষে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রির প্রথম দিনেই কাঙ্ক্ষিত টিকিটটি হাতে পেতে চেয়েছিলেন তিনি। সে জন্য গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় কমলাপুর স্টেশনে এসে লাইনে দাঁড়ান। তবে সকালে টিকিট বিক্রি শুরু হওয়ার পর তাঁর পর্যন্ত আসার আগেই তা শেষ হয়ে যায়।

ট্রেনের টিকিট যেহেতু লাগবেই, তাই লাইনের ওই অবস্থান ছাড়তে চান না আদিয়াত। সে কারণে আগামীকাল শনিবার সকাল আটটায় টিকিট বিক্রি সামনে রেখে আজ বেলা ১১টা থেকেই ওই লাইনে দাঁড়িয়ে রয়েছেন তিনি।

আজ শুক্রবার কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে উত্তরাঞ্চলগামী আন্তনগর এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম (পঞ্চগড়) ঈদ স্পেশাল ট্রেনের টিকিট বিক্রি করা হয়। আজ বিক্রি হয় ৫ জুলাইয়ের টিকিট। আগামীকাল বিক্রি হবে ৬ জুলাইয়ের টিকিট।

আদিয়াত হাসান জানান, গতকাল রাতে তিনি যখন লাইনে দাঁড়ান, তখন তাঁর সামনে প্রায় ১০০ জন মানুষ ছিলেন। আজ বেলা ১১টার দিকে টিকিট বিক্রি শেষ হয়েছে। সামনে দুই-তিনজন ছিলেন। ভাগ্য খারাপ, তাই আজকে টিকিট পাননি।

বেলা পৌনে একটার দিকে কমলাপুরে সিরিয়াল ধরে লাইনে বসে থাকতে দেখা যায় আদিয়াতকে। তিনি আইনের চোখকে বলেন, ‘যাঁরা টিকিট পাইনি, তাঁরা নিজেরা একটি সিরিয়াল করেছি। সেখানে আমার সিরিয়াল ৬ নম্বরে। আশা করি, আগামীকাল আগে আগে পেয়ে যাব।’ অর্থাৎ আগামীকাল সকাল আটটায় টিকিট পেলেও আদিয়াত হাসানের লাইনে অবস্থানের সময় হবে ৩৪ ঘণ্টা।

টঙ্গী থেকে ভোর চারটায় কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে টিকিট কিনতে আসেন সাদ্দাম হোসেন নামের এক যাত্রী। কিন্তু তিনি টিকিট পাননি। তিনি বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। শুক্রবার ছুটি হওয়ায় আগামীকাল পর্যন্ত টিকিটের জন্য থেকে যান তিনি।

দেখা যায়, কমলাপুরে যেসব কাউন্টারে টিকিট বিক্রি হচ্ছিল, সেগুলোর টিকিট সকাল সাড়ে ১০টার পর থেকে বেলা একটার মধ্যে শেষ হয়। যাঁরা লাইনে দাঁড়িয়েও টিকিট পাননি, তাঁদের অনেকেই সেই লাইনে থেকে যান। আবার আগামীকালের টিকিটের জন্য আজ দুপুরেই কেউ কেউ স্টেশনে যান। তাঁরা লাইনে দাঁড়িয়ে যান।

রাতভর অপেক্ষা করেও টিকিট পাওয়া যায়নি। তাই পরদিনের টিকিট পেতে কমলাপুর স্টেশনে লাইনের অবস্থান ছাড়েননি অনেকে। দিন–রাত অপেক্ষার পর সকালে পাওয়া যাবে টিকিট। ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষার মধ্যে ঘুমিয়ে নিচ্ছেন কেউ কেউ  

রাতভর অপেক্ষা করেও টিকিট পাওয়া যায়নি। তাই পরদিনের টিকিট পেতে কমলাপুর স্টেশনে লাইনের অবস্থান ছাড়েননি অনেকে। দিন–রাত অপেক্ষার পর সকালে পাওয়া যাবে টিকিট। ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষার মধ্যে ঘুমিয়ে নিচ্ছেন কেউ কেউ  

আজ ঢাকা থেকে দেশের বিভিন্ন গন্তব্যে ছেড়ে যাওয়া ৩৭টি আন্তনগর ট্রেনের টিকিট বিক্রি করা হয়। মোট টিকিট বিক্রি করা হয় ২৬ হাজার ৭২৯টি। এর অর্ধেক অনলাইনে এবং অর্ধেক কাউন্টার থেকে বিক্রি করা হয়।

কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনসহ মোট সাতটি স্টেশন থেকে এবার ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি হচ্ছে। সেগুলোর মধ্যে কমলাপুরের শহরতলি প্ল্যাটফর্ম থেকে রাজশাহী ও খুলনাগামী সব আন্তনগর ট্রেনের; ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশন থেকে চট্টগ্রাম ও নোয়াখালীগামী সব আন্তনগর ট্রেনের; তেজগাঁওয়ে ময়মনসিংহ, জামালপুর, দেওয়ানগঞ্জগামী সব আন্তনগর ট্রেন ও দেওয়ানগঞ্জ ঈদ স্পেশাল ট্রেনের; ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট স্টেশন থেকে মোহনগঞ্জগামী মোহনগঞ্জ ও হাওর এক্সপ্রেস ট্রেনের; ফুলবাড়িয়ায় (পুরোনো রেলওয়ে স্টেশন) সিলেট ও কিশোরগঞ্জগামী সব আন্তনগর ট্রেনের এবং কমলাপুরের পাশাপাশি জয়দেবপুর থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম (পঞ্চগড়) ঈদ স্পেশাল ট্রেনের টিকিট বিক্রি হচ্ছে।

এবার ট্রেনের টিকিট মোট পাঁচ দিন বিক্রি হবে। তার মধ্যে আজ ১ জুলাই ৫ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি হয়ে গেল। এ ছাড়া আগামীকাল ২ জুলাই হবে ৬ জুলাইয়ের, ৩ জুলাই হবে ৭ জুলাইয়ের, ৪ জুলাই হবে ৮ জুলাইয়ের এবং ৫ জুলাই হবে ৯ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি।