ArabicBengaliEnglishHindi

এবার অত্যাধুনিক মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্রব্যবস্থা পাচ্ছে ইউক্রেন


প্রকাশের সময় : জুলাই ২, ২০২২, ৫:৪০ অপরাহ্ণ / ৪৯
এবার অত্যাধুনিক মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্রব্যবস্থা পাচ্ছে ইউক্রেন

তুরস্ক দেশটিকে অত্যাধুনিক ড্রোন দিয়েছে। যুক্তরাজ্য নতুন করে ৫০ কোটি ডলারের অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম দেওয়ার কথা জানিয়েছে। কানাডা ২০ কোটি ডলারের বেশি সামরিক সহায়তা পাঠিয়েছে। এ ছাড়া ফ্রান্স, স্পেন, নরওয়ে, সুইডেন, ফিনল্যান্ড, ডেনমার্ক, পোল্যান্ড, স্লোভাকিয়াসহ অনেক দেশ সহায়তা নিয়ে ইউক্রেনের পাশে দাঁড়িয়েছে।

রাশিয়া–ইউক্রেন যুদ্ধ

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিও যুক্তরাষ্ট্রকে সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। গতকাল রাতে এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র ও দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। ইউক্রেনকে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির দেওয়া বিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রব্যবস্থা আমাদের আকাশ প্রতিরক্ষাকে আরও জোরদার করবে।’

নতুন করে ঘোষণা দেওয়া সহায়তার অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম পরবর্তী কয়েক সপ্তাহ বা মাসের মধ্যে ইউক্রেনে পৌঁছাতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রতীকী ছবি

রুশ সশস্ত্র বাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ ভ্যালেরি গেরাসিমোভ ইউক্রেনে রুশ সেনা একটি ঘাঁটি পরিদর্শন করেছেন বলে জানিয়েছে ক্রেমলিন। এ-সংক্রান্ত একটি ছবিতে দেখা যায়, তিনি রুশ সেনাদের সঙ্গে কথা বলছেন। তবে কবে নাগাদ তিনি ইউক্রেনে গিয়েছিলেন, তা জানানো হয়নি।

ওদেসায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলার

সাম্প্রতিক সময়ে ইউক্রেনের বিভিন্ন এলাকায় হামলা জোরদার করেছে রুশ বাহিনী। বিশেষত ক্ষেপণাস্ত্র হামলা। এ পরিস্থিতিকে ‘ক্ষেপণাস্ত্র বৃষ্টি’ হিসেবে তুলনা করে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ‘সন্ত্রাসবাদের’ অভিযোগ তুলেছেন জেলেনস্কি। তাঁর মতে, রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইউক্রেনে বেসামরিক অনেক মানুষ নিহত হয়েছেন, হচ্ছেন। ধ্বংস হয়েছে অনেক বেসামরিক স্থাপনা। এটা স্পষ্টতই রুশ বাহিনীর রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসবাদ।