ArabicBengaliEnglishHindi

একটি সংঘবদ্ধ দাদন ব্যাবসায়ী ফাঁকা ষ্টেম ও ব্যাংকের চেক বন্ধক নিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন, এদের খপ্পড়ে পড়ে সাধারন মানুষ দেশেহারা।


প্রকাশের সময় : আগস্ট ৩১, ২০২২, ২:৫২ অপরাহ্ণ / ৮৩
একটি সংঘবদ্ধ দাদন ব্যাবসায়ী ফাঁকা ষ্টেম ও ব্যাংকের চেক বন্ধক নিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন, এদের খপ্পড়ে পড়ে সাধারন মানুষ দেশেহারা।

মাজহারুল ইসলাম পঞ্চগড়  প্রতিনিধিঃ একদল দুধর্ষ দাদন ব্যাবসায়ী ব্যাবসার নামে সু কৌশলে ফাঁকা স্টেম ও ব্যাংকের চেক নিয়ে সুদের মোটা অংকের টাকা বসিয়ে সাধারন মানুষদের সাথে প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে বোদা উপজেলার পৌর শহরের ইউসুফ আলী  পিতা তোজাম্মেল হক সাতখামার, মাসুদ আলম পিতা মময়নুল হক সাতখামার ও শাহজালাল পিতা রহিজউদ্দদীন মাওনা  গাজিপুর, এই ব্যাক্তিদের কাছে ঠাকুরগাওঁ সদর উপজেলার জাঠিভাঙ্গা গ্রামের দুধর্ষ দাদন ব্যাবসায়ী আব্দুল সাত্তার, শামিম  ইউসুফ গংদের সাথে  ব্যাবসায়ীক সূত্রে পরিচয় হয়।পরবর্তীতে ব্যাবসার প্রলোভন দেখিয়ে তাদের কাছে মালামাল বাকীতে আদান প্রদানের জন্য জমানত সরূপ হিসাব নং ৪৬০৬০১০০১৩৩৬৯ ও ৪০৬০৬০১০০১৩৩৫০ এবং ৪৬০৬০১০০১৪০০২ এই তিনটি হিসাব নাম্বার থেকে মোট ৬টি পাতা রুপালী ব্যাংক লিমিটেড ও ফাঁকা স্বাক্ষরযুক্ত মোট নয় শত টাকার ৯টি স্টেম পাতা  সু কৌশলে গ্রহন করেন। পরবর্তীতে শামীম ও সাত্তার  ৪টি চেকে মোট ৯৩ লাখ টাকা অংকের হিসাব বসিয়ে ইউসুফ, মাসুদ ও শাহজালালদের কাছে টাকার জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকেন কিন্তু  ইউসুফরা এত মোটা অংকের টাকার মধ্যে তারা একটি টাকাও  গ্রহন করেননি। দাদন ব্যাবসায়ীদের ষড়যন্ত্রেরর খপ্পর থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য ঠাকুরগাঁও  অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট কোটে ৯৮ ও ৩২৩/৩৮৫/৩৮৬/৫০৬(২)/৩৪ দন্ড বিঃধিঃ মোতাবেক এই ধারায় মামলা করেন।মামলাটি তদন্তাদিন রয়েছে।
এদিকে কুচক্র দাদান ব্যবসায়ীরা  মোট ৯৩ লাখ টাকা উত্তলনের জন্য   ইউসুফ মাসুদ ও শাহজালালের বিরুদ্ধে উকিল নোটিশ করেন।
এ ব্যাপারে শুকান পুখুরী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি অসুস্থা থাকার জন্য তথ্য সমুহ গ্রহন করা হয়নি।পরবর্তীতে স্থানীয় আওয়ামীলীগের সেক্রটারী শ্রী তুসারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ওই দুর্ধষ দাদন ব্যাবসায়ীদের কার্যকলাপ ও আচনরন বিধির কথা সত্যতা স্বীকার করেন। এব্যাপারে সরকারকে কর ও ভ্যাট ফাঁকি সু কৌশলে এ ধরনের দাদন ব্যাবসা চালিয়ে আসছে।তাদের দ্বারা অসংখ্য মানুষ শোষন ও নাজেহাল হচ্ছেন।এদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য এলাকাবাসী জোর দাবী জানিয়েছেন।