ArabicBengaliEnglishHindi

এই বর্ষা মৌসুমে সবার নজর কাড়ছে তালের শাঁস


প্রকাশের সময় : জুন ৯, ২০২২, ১১:১৬ পূর্বাহ্ণ / ১৩৮
এই বর্ষা মৌসুমে সবার নজর কাড়ছে তালের শাঁস
শহ‌রের আনাচে কানাচে এই বর্ষা মৌসুমে যে ফলটি সবার নজর কাড়ছে সেটি হচ্ছে তালের শাঁস। অঞ্চল ভেদে এর রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন নাম। কেউ বলে তালের বিচি, কেউ বলে তালের কুই আবার কেউ বা বলে তালের আঁটি। সুস্বাদু এই ফলটি ছেলে-বুড়ো সবারই পছন্দ। আর তালের শাসের উপকারিতাও অনেক।
মিষ্টি স্বাদের মোহনীয় গন্ধে ভরা প্রতি ১০০ গ্রাম তালের শাঁসে রয়েছে
৮৭ কিলোক্যালরি,
৮ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম,
জলীয় অংশ ৮৭.৬ গ্রাম,
আমিষ .৮ গ্রাম,
ফ্যাট .১ গ্রাম,
কার্বোহাইড্রেটস ১০.৯ গ্রাম,
খাদ্যআঁশ ১ গ্রাম,
ক্যালসিয়াম ২৭ মিলিগ্রাম,
ফসফরাস ৩০ মিলিগ্রাম,
লৌহ ১ মিলিগ্রাম,
থায়ামিন .০৪ গ্রাম,
রিবোফাভিন .০২ মিলিগ্রাম,
নিয়াসিন .৩ মিলিগ্রাম,
ভিটামিন সি ৫ মিলিগ্রাম।
এসব উপাদান আমাদের শরীরকে নানা রোগ থেকে রক্ষা করাসহ রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করে। চলুন তাহলে জেনে নেই তালের শাঁসের স্বাস্থ্য উপকারিতাগুলো।
১. গরমের দিনে তালের শাঁসে থাকা জলীয় অংশ পানিশূন্যতা দূর করে এবং শরীর রাখে ক্লান্তিহীন।
২. এতে থাকা ভিটামিন সি ও বি কমপ্লেক্স তৃপ্তি ও খাবারে রুচি বাড়াতে সহায়তা করে।
৩. তালের শাঁসে থাকা ভিটামিন এ দৃষ্টিশক্তিকে উন্নত করে।
৪. এর এন্টি অক্সিডেন্ট শরীরকে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়।
৫. বমিভাব আর বিস্বাদ দূর করতে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
৬. তালে থাকা উপকারী উপদান ত্বক সুন্দর করে।
৭. কচি তালের শাঁস লিভারের সমস্যা দূর করতে সহায়ক।
৮. কচি তালের শাঁস রক্তশূন্যতা দূর করতে দারুণ ভূমিকা রাখে।
৯. তালের শাঁসে থাকা ক্যালসিয়াম হাঁড় গঠনে দারুণ ভূমিকা রাখে।
১০. তালের শাঁস আমাদের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। এটি খেলে আমাদের শরীরের ভেতরে নাইট্রেটের পরিমাণ বেড়ে যায়, যা প্রাকৃতিক উপায়ে আমাদের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।
এছাড়াও এতে থাকা পটাশিয়াম আমাদের কোষ ও রক্তরসের জন্য দরকারি উপাদান হিসেবে কাজ করে। একইসাথে এটি আমাদের হৃৎস্পন্দনকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।