ArabicBengaliEnglishHindi

‘আ.লীগ কচুপাতার শিশির নয় যে টোকা দিলে পড়ে যাবে’


প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ১৫, ২০২৩, ৫:১৭ অপরাহ্ণ / ৪৪
‘আ.লীগ কচুপাতার শিশির নয় যে টোকা দিলে পড়ে যাবে’

জেলা প্রতিনিধি :- নীলফামারী: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন তার দল কচুপাতার শিশির নয় যে টোকা দিলে পড়ে যাবে। যারা মায়ের বুক খালি করেছেন তাদের বিরুদ্ধে খেলতেও চেয়েছেন তিনি।

রোববার (১৫ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় নীলফামারীর সৈয়দপুর ফাইভ স্টার মাঠে শীতবস্ত্র বিতরণ উপলক্ষে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

সেতুমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ কচুপাতায় ভোরের শিশির নয় যে টোকা দিলে পড়ে যাবে। আওয়ামী লীগকে ক্ষমতাচ্যুত করা দিবাস্বপ্ন ছাড়া কিছুই নয়। এ সময় খেলা হবে বলে শ্লোগান দেন তিনি। ওবায়দুর কাদের বলেন, খেলা হবে ভোট চুরির বিরুদ্ধে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে, আগুন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে, যারা মায়ের বুক খালি করেছেন তাদের বিরুদ্ধে। আগামী বছর জানুয়ারিতে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

আওয়ামী লীগ সম্পাদক বলেন, যে বিপদে আপদে জনগণের পাশে থাকে না। সে বঙ্গবন্ধুর সৈনিক হতে পারে না, হতে পারে না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কর্মী। শেখ হাসিনা মানুষকে আঁধার থেকে আলোর পথে এনেছেন। আজকে সূর্যোদয়ে সেই কথাই বলছে।

উত্তর জনপদের মঙ্গা এখন জাদুঘরে চলে গেছে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। নিজে কখনও রাষ্ট্রপতি হবেন না বলেও জানান।

পরে তাকে সাংবাদিকরা বিভিন্ন প্রশ্ন করেন। জাতীয় পার্টি সম্পর্কিত এক প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, আদর্শিক কারণে জাতীয় পার্টি এখন আমাদের সাথে নেই।

পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি সম্পর্কিত প্রশ্নের উত্তরে সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে দেশে জিনিসপত্রের দাম কিছুটা বেড়েছে। এতে সাধারণ মানুষ কষ্ট পাচ্ছেন। তাই বড় বড় কাজ আর নির্বাচনের আগে গ্রহণ করা হবে না।

সভায় বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার বিষয়ক মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বিএনপিকে অতিথি পাখি মন্তব্য করে তিনি বলেন, সারা বছর খবর তাদের নেই। উত্তরের মানুষ শীতে মারা যাচ্ছে, অথচ তারা একটি কম্বলও বিতরণ করেনি।

বাংলাদেশ অর্থনীতি নিয়ে তিনি বলেন, আমাদের দেশ স্বাবলম্বী হয়ে ৬০তম থেকে ৩৫তম অর্থনীতির দেশে পরিণত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের কারণে এটি সম্ভব হয়েছে।

রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন নিজ বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করছেন তার যোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা। বিএনপি-জামায়াত দেশকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে। তাই সবাইকে সতর্ক থাকতে আহ্বান জানান তিনি।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ডা. হোসনে আরা ডালিয়া, সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোখছেদুল মোমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক। সভা পরিচালনা করেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী। আরও উপস্থিত ছিলেন উত্তর জনপদের ৯টি সাংগঠনিক জেলার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকরা।

সভার পর নীলফামারীর শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়। রংপুর বিভাগের অন্যান্য জেলায় প্রতিনিধিদের মাধ্যমে ৩০ হাজার কম্বল বিতরণের অংশ হিসাবে সৈয়দপুরেও ৩ হাজার কম্বল বিতরণ করেন প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিরা।

এর আগে মন্ত্রী ও দলের কেন্দ্রীয় নেতারা সৈয়দপুর বিমানবন্দর পৌঁছলে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।

%d bloggers like this: